ট্রাইগ্লিসারাইড সম্পর্কে জানেন?

র’ক্তে ক্ষতিকর চর্বি কোলেস্টেরল নিয়ে অনেকে সচেতন থাকেন। কিন্তু ট্রাইগ্লিসারাইড সম্পর্কে সবাই হয়তো অতটা জানেন না। র’ক্তে চর্বি নানান রূপে উপস্থিত থাকে, সেগুলোরই একটির নাম ট্রাইগ্লিসারাইড। এমনিতে এই চর্বির সঙ্গে হৃদ্‌রোগের সরাসরি কোনো সংযোগ পাওয়া যায়নি। কিন্তু এটির মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে বিপদ ঘটতে পারে।

1
2
3

ট্রাইগ্লিসারাইড মূলত একধরনের চর্বি। খাদ্য গ্রহণের ফলে সৃষ্ট বাড়তি ক্যালরিকে মানুষের শরীর ট্রাইগ্লিসারাইডে রূপান্তর করে মেদকোষে শক্তি হিসেবে জমা রাখে। পরবর্তী সময়ে প্রয়োজন অনুযায়ী এই ট্রাইগ্লিসারাইড বেরিয়ে এসে শরীরে শক্তির চাহিদা মেটায়। কিন্তু নানা কারণে শরীরে ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা বা পরিমাণ বেড়ে যেতে পারে। যেমন ভাত, চিনি ও মিষ্টিজাতীয় খাবারে অধিক আসক্তি, তেল-চর্বিজাতীয় খাবার গ্রহণ, কায়িক শ্রমের অভাব, ডায়াবেটিস, হাইপোথাইরয়েডিজম, লিভারের অসুখ, জিনগত কারণ, ধূমপান, অ্যালকোহল, মানসিক চাপ প্রভৃতি কারণে শরীরে ট্রাইগ্লিসারাইডের পরিমাণ বাড়তে পারে।

4
5
6

র’ক্তের লিপিড প্রোফাইল পরীক্ষা করলে র’ক্তের অন্যান্য চর্বির পাশাপাশি ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা জানা যায়। সাধারণত প্রতি ডেসিলিটারে ২০০ মিলিগ্রামের বেশি থাকলে সেটা বিপজ্জনক হতে পারে। এ রকম ক্ষেত্রে অগ্ন্যাশয়ের প্রদাহের (প্যানক্রিয়াটাইটিস) মতো জটিল ও মারাত্মক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা সহনীয় পর্যায়ে রাখতে হবে। পরিবর্তন আনতে হবে খাদ্যাভ্যাস ও জীবনপদ্ধতির।

7
8
9

সরল শর্করার পরিবর্তে জটিল শর্করা (যেমন আটা, ঢেঁকি-ছাঁটা চাল, ওটস, ভুট্টা, অঙ্কুরিত ছোলা প্রভৃতি) এবং প্রচুর আঁশ-সমৃদ্ধ খাবার (যেমন শাকসবজি ও ফলমূল), সামুদ্রিক মাছ খেতে হবে। খাবারে তেলের মাত্রা কমাতে হবে। গবেষণায় দেখা যায়, লো-ফ্যাট ডায়েটের পরিবর্তে লো-কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাদ্যাভ্যাসে ট্রাইগ্লিসারাইড নিয়ন্ত্রণ করা সহজ হয়। সামুদ্রিক মাছে রয়েছে প্রচুর ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, যা ট্রাইগ্লিসারাইড কমাতে যথেষ্ট সহায়ক।

10
11
12

আলস্য কাটিয়ে শরীরচর্চা শুরু করুন। প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটুন। শরীরের বাড়তি ওজন কমান। পর্যাপ্ত ঘুমান, ঝেড়ে ফেলুন মানসিক উৎকণ্ঠা ও চাপ। ধূমপান ও অ্যালকোহল বর্জন করুন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখুন, হাইপোথাইরয়েড বা লিভারের সমস্যা থাকলে চিকিৎসা নিন।

Leave your vote

Comments

0 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *