in

যে ১০টি ধ্রুব সত্য আমরা একদম ভুলে যাই

বিস্ময়কর হলেও সত্য জীবনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো খুব সহজেই আমাদের দৃষ্টির অগোচরে থেকে যায়। ব্যস্ত সময়, দিনের কাজ, সপ্তাহের রুটিন মস্তিষ্ককে সদা ব্যস্ত রাখে।

জীবনের কিছু প্রয়োজনীয় সত্য বারবারই ধরা দেয়। আর সে কারণে এ লেখাটি বুকমার্কে রাখুন আর সুযোগ পেলেই একবার খুলে পড়ে নিন- যে ১০টি ধ্রুব সত্য আমরা সহজেই ভুলে যাই।

১. ব্যস্ততা মানেই উৎপাদনশীলতা নয়

সাফল্য বস্তুত আপনার নড়াচড়া আর কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আসে না। সাফল্য আসে আপনি কতটা সুনির্দিস্টভাবে কাজটি করতে পারছেন তার ভিত্তিতে। আপনি সময়টিকে কতটা কার্যকর আর উৎপাদনশীলতায় ব্যবহার করতে পেরেছেন তার নীরিখে।

২. ব্যর্থতার পরেই আসে বড় কোনও সাফল্য

বড় সাফল্যগুলো সাধারণত তখনই আসে ঠিক যখন আপনি থাকেন সবচেয়ে বেশি হতাশ ও সবচেয়ে নিমজ্জিত। এই হতাশাই আপনাকে ভিন্নভাবে ভাবতে শেখায়, বক্সের বাইরে তাকান আর সমাধানটি খুঁজে বের করুন, যা এতদিন আপনি খুঁজে পাননি এখন পেয়ে যাবেন।

৩. ভয় দুঃখ ডেকে আনবেই

অনিয়মিত পিরিয়ড

সব কিছু যখন বলা ও করা হয়ে যাবে, আপনার মনে হবে সবপথেই চেষ্টা করে দেখলেন, আর কোনও পথ বাকি নেই তখনও ভীত হয়ে পড়বেন না। এমন পরিস্থিতিতে ঝুঁকি নিতে ভয় পাবেন না। তাতে মৃত্যু আসারও সম্ভাবনা যদি থাকে।

৪. আপনার নিজের যোগ্যতাটিই সবচেয়ে বড় কথা

অন্যরা আপনাকে নিয়ে কি ভাবছে সে নিয়ে চিন্তিত হওয়ার প্রয়োজন নেই, অন্যের সঙ্গে নিজেকে তুলনা করারও প্রয়োজন নেই। মানুষের মতামত অবশ্যই নিতে পারেন, কিন্তু একটি জিনিষ অবশ্যই মনে রাখবেন, তারা আপনার সম্পর্কে যতটা ভালো কিংবা মন্দ বলে তার কোনওটাই আপনি নন।

৫. আপনি কতটা ভালো তা আপনার সঙ্গরাই বলে দেবে

আপনি ঠিক ততটাই ভালো হবেন যতটা আপনার সঙ্গিরা। ফলে তাদেরই আশেপাশে থাকুন, কিংবা তাদেরই আশেপাশে রাখুন যারা আপনার জন্য ভালো কেউ হবেন। আপনি হয়তো সেটাই করেন।

৬. জীবনটা খুব ছোট

প্রতিদিন সকালে নিজেকেই নিজে স্মরণ করিয়ে দিন যে আজকের এই দিনটিই আপনার কাছে একটা উপহার স্বরূপ এসেছে। আর এই আশীর্বাদ হিসেবে আসা সময়টিকে আপনি সর্বোচ্চ কার্যকারিতায় ব্যবহার করবেন।

৭. কাউকে ক্ষমা করে দিতে ক্ষমা প্রার্থনার অপেক্ষা করবেন না

জীবনটা অনেক ভালো চলবে যখন অন্যকে খুব দ্রুত ক্ষমা করে দিতে পারবেন। এমনকি কেউ যদি কথনো তার কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশটিও না করে তাও। এসবের জন্য আপনি আপনার আজকের আনন্দটি মাটি করতে পারেন না।

৮. আপনার সৃষ্ট জীবনটাই আপনি যাপন করছেন

আপনি কখনো পরিস্থিতির শিকার হবেন না। কেউ আপনাকে জবরদস্তি করে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করাতে পারবে না। আজ আপনি যেভাবে বেঁচে আছেন তা আপনার নিজেরই তৈরি- আপনিই তার স্রষ্টা। ঠিক একইভাবে আপনার ভবিষ্যতের স্রষ্টাও আপনি।

৯. এখনের জন্য বাঁচুন

যৌন ক্ষমতা

আপনি যদি বর্তমান সময়টিতে কিভাবে বাঁচতে হবে তা না জানেন তাহলে কখনোই আপনার পূর্ণ সম্ভাবনা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারবেন না। কোনও অপরাধ বোধ দিয়েই অতীতকে মুছে দেওয়া যাবে না। আর উদ্বিগ্ন হয়ে ভবিষ্যতকে বদলাতে পারবেন না।

১০. পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী… একে আলিঙ্গন করুন

আপনার মনটা উদার হতে হবে। আপনার দুবাহু বাড়িয়ে রাখতে হবে যাতে পরিবর্তনকে সহজেই গ্রহণ করতে পারেন। পরিবর্তনকে উপেক্ষা করে গেলে আপনার ব্যর্থতা অনিবার্য।

জীবন কারো জন্য থেমে থাকে না। যখন সব কিছু ভালোয় ভালোয় চলে, সেগুলোকে প্রশংসা করুন, উপভোগ করুন, কারণ ওগুলোই আপনাকে পাল্টে দেবে। আপনি যদি সারাক্ষণই অন্য কিছুর খোঁজে থাকেন, আরও ভালো কিছু পেতে চান, আর ভাবেন তাতেই আপনার সুখ আসবে, তাহলে বর্তমানকে নিয়ে খুশি থাকার জন্য আপনার উপস্থিতিটাই থাকবে না। সুন্দর সময়টি চলে যাওয়ার আগেই তা উপভোগ করে নিন।

What do you think?

DEHO

Written by DEHO

রোগ প্রতিরোধ এবং প্রতিকারের জন্য ওষুধের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে প্রাকৃতিক প্রতিষেধকগুলো সম্পর্কে ধারণা এবং এদের ব্যবহার জানা জরুরী। সঠিক খাদ্য নির্বাচন এবং ব্যায়াম অসুখ বিসুখ থেকে দূরে থাকার মূলমন্ত্র। রোগের প্রতিকার নয়, প্রতিরোধ করা শিখতে হবে। এই সাইটটির উদ্দেশ্য বাংলাভাষায় স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তবে তা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প হিসাবে নয়। রোগ নির্ণয় এবং তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

স্মার্ট মানুষ যে ১০টি কথা কখনও বলেন না

সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব কার? তার না কি আপনার?