যৌবন ধরে রাখতে যে ১০টি খাবার জাদুর মতো কাজ করে

যৌবন ধরে রাখতে সবাই চায়। কেউই চায় না এত তাড়াতাড়ি বুড়িয়ে যেতে। প্রকৃতির নিয়মে বয়স তো বাড়বেই কিন্তু সেটা মন থেকে মেনে নিতে সবারই কষ্ট হয়।তারুণ্য ধরে রাখতে অনেকেই কসমেটিক সার্জারি এবং বিভিন্ন ওষুধ, পথ্য গ্রহণ করেন, যা কিনা শরীরের জন্য ক্ষতিকর এবং একই সাথে ব্যয়বহুলও বটে। আপনি কি জানেন, যৌবন ধরে রাখতে এসব কিছুর প্রয়োজন নেই?

দেহ আপনাদের জন্য আজ হাজির করতে যাচ্ছে এমন ১০টি সহজলভ্য খাবার যা আপনারা খাদ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে সহজেই দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে পারবেন। চলুন দেখে নিই, কী কী রয়েছে এই তালিকায়!

১. যৌবন ধরে রাখতে টক দই

যৌবন ধরে রাখতে টক দই

দই অনেক এর কাছেই খুব প্রিয় একটি খাবার। টক দই মেদ ও কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। দইয়ে প্রচুর প্রোটিন ও ক্যালসিয়াম আছে যা শরীরের গঠন ভালো রাখে ও হাড়ের ক্ষয়রোধে সাহায্য করে। এছাড়াও দই ত্বককে রাখে বলিরেখা মুক্ত। তাই প্রতিদিন টক দই খান।

২. ডার্ক চকোলেট

যারা ডার্ক চকোলেট ভালোবাসেন তাদের জন্য সুখবর হলো, ডার্ক চকোলেট বয়স ধরে রাখতে সাহায্য করে। ডার্ক চকোলেটে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। তাই যারা নিয়মিত ছোটো এক টুকরো ডার্ক চকোলেট খাবেন তারা দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে পারবেন।

৩. অলিভ ওয়েল

যৌবন ধরে রাখতে অলিভ অয়েল

রান্নায় নিয়মিত অলিভ ওয়েল ব্যবহার করলে শরীরের কোলেস্টেরল কমায় এবং সহজে মেদ জমতে দেয় না। এছাড়াও ঘুমাতে যাওয়ার আগে ত্বকে অলিভ তেল দিয়ে ঘুমালে ত্বকের বলিরেখা কমাতে সাহায্য করে। ফলে দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখা যায়।

৪. যৌবন ধরে রাখতে টমেটো ও গাজর অনন্য

যৌবন ধরে রাখতে টমেটো ও গাজর

ত্বক ও স্বাস্থ্যের জন্য টমেটো ও গাজর খুবই উপকারী। এগুলোতে রয়েছে প্রচুর ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এছাড়াও এতে আছে লুমেইন ও বিটা ক্যারোটিন যা শরীরের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করতে সাহায্য করে।

৫. সামুদ্রিক মাছ

যৌবন ধরে রাখতে সামুদ্রিক মাছ

সামুদ্রিক মাছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড থাকে যা শরীরের জন্য উপকারী। খাবার তালিকা থেকে লাল মাংস বাদ দিয়ে নিয়মিত সামুদ্রিক মাছ খেতে পারেন। এতে করে প্রোটিন এর চাহিদাও পূরণ হবে এবং দীর্ঘদিন যৌবন ধরে রাখতে পারবেন।

৬. অ্যাভোকাডো

প্রতিদিন একটি অ্যাভোকাডো ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করতে সহায়তা করে। এটি চুল ও ত্বকের জন্য খুব উপকারী। স্বাস্থ্যসম্মত ফ্যাট থাকায় ওজন কমাতেও সাহায্য করে। তাই চেষ্টা করুন নিয়মিত অ্যাভোকাডো খেতে।

৭. গ্রিন টি

গ্রিন টির স্বাদ ভালো না হওয়ায় বেশিরভাগ মানুষই এটা খেতে পছন্দ করেন না। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এ সমৃদ্ধ এই গ্রিন টির রয়েছে অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা। শরীর এর বুড়িয়ে যাওয়াকে এটি কয়েক গুণ কমিয়ে দিতে পারে। তাই এখন থেকে দুধ চিনি দিয়ে চায়ের পরিবর্তে নিয়মিত গ্রিন টি পানের অভ্যাস গড়ুন।

৮. ব্রকলি

এতে আছে খনিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। ক্ষতিগ্রস্ত ত্বকের টিস্যু মেরামত করে এবং ত্বক উন্নত করতে ব্রকলি তে থাকা গ্লুকোরাফানিনের বৈশিষ্ট্য অনন্য। ব্রকলিতে প্রচুর পরিমাণে দ্রবণীয় ফাইবার থাকে যা শরীর থেকে কোলেস্টেরল বের করে দেয়।

৯. পালং শাক

পালং শাক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এ ভরপুর। এছাড়াও এতে প্রচুর লুটেইন আছে যা শরীরের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করে এবং যৌবন ধরে রাখতে সাহায্য করে। চোখের চারপাশের কালো দাগ দূর করে, ত্বককে লাবণ্যময় করে তোলে। শরীরের বিভিন্ন অসুবিধা দূর করে এবং শরীরে পুষ্টি ও শক্তির যোগান দেয়।

১০. যৌবন ধরে রাখতে মাশরুম

মাশরুম বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করে। অতিরিক্ত ওজন কমাতেও সাহায্য করে। ক্যানস্যার এর বিরুদ্ধে কাজ করে।

এছাড়াও নিয়মিত ব্যায়াম করুন। সবসময় স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করবেন। সর্বোপরি চিন্তামুক্ত থাকার চেষ্টা করুন সবসময়। কেননা অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা মানুষকে সহজেই বুড়িয়ে দেয়।

আপনি যৌবন ধরে রাখার জন্য কখনো কোনো পদক্ষেপ নিয়েছেন? যদি না নিয়ে থাকেন তাহলে আশা করি উপরিউক্ত বিষয়গুলো আপনাকে সাহায্য করবে। ধন্যবাদ দেহ’র সাথে থাকার জন্য।

Leave your vote

13 points
Upvote Downvote

Comments

0 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *